২৪শে অক্টোবর, ২০২১ ইং ।। রবিবার ।। ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ।। নিবন্ধনের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় আবেদনকৃত অনলাইন পত্রিকা www.jhalokathisomoy.com

সাম্প্রদায়িক, মৌলবাদী ও মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ছাড়া যে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান এ সাইটের তথ্য, ছবি বা ভিডিও প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারবেন-সম্পাদক

ঝালকাঠিতে যুবলীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে  উজ্জীবিত নেতা-কর্মীরা

দীর্ঘ দিন পরে ঝালকাঠিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের বর্ধিত সভা। কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর সভা ডাকা হয়েছে।আর ওই সভার মধ্য দিয়ে আগামী দিনের নেতৃত্ব নির্বাচন করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাই এই বর্ধিত সভাকে ঘিরে উজ্জিবিত যুবলীগের নেতা-কর্মীরা।

দলীয় সূত্রে জানাগেছে, স্বাধীনতার পর থেকে আজ পর্যন্ত ঝালকাঠিতে জেলা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয় নি। তবে কয়েক বার আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সর্বশেষ  ২০১১ সালে জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক গঠন করা হয়েছিল। তখন লিয়াকত আলী খানকে আহ্বায়ক এবং রেজাউল করিম জাকির ও হাবিবুর রহমান হাবিলকে যুগ্ম-আহ্বায়ক ঘোষণা করে কেদ্রিয় কমিটি। বেশ কিছু দিন তাদের নেতৃত্বে জেলা যুবলীগের কার্যক্রম চলার পরে লিয়াকত আলী খান ও হাবিবুর রহমান হাবিল জেলা আওয়ামী লীগের পদ পেয়ে যুবলীগের রাজনীতি থেকে নিস্কৃয় হন। এরপর থেকে রেজাউল করিম জাকিরের নেতৃত্বে জেলা যুবলীগের রাজনীতি পরিচালিত হত। বর্তমানে কেন্দ্রের নির্দেশে  রজাউল করিম জাকির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। অসংখ্য তৃণমূলকের্মী ছাড়াও তার সাথে রয়েছেন আরও বেশ ক’জন নেতৃত্ববৃন্দ।

তাদের মধ্যে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও শহর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মো. ছবির হোসেন বলেন, অতীতে যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে ঝালকাঠি জেলা যুবলীগ অত্যান্ত সু-সংগঠিত। দলের মধ্যে নেই কোন গ্রুপিং। কেন্দ্র ঘোষিত সকল কর্মসূচি পালিত হচ্ছে জাকজমক ভাবে। পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগসহ অন্য সহযোগি সংগঠনের কর্মসূচিতেও যুবলীগের অংশগ্রহণ থাকে সবচে বেশি।

এদিকে অনেক দিন ধরেই জেলা যুবলীগসহ জেলায় যুবলীগের সবগুলো পুনাঙ্গ কমিটি গঠন করা হবে বলে কেদ্রিয় আশ্বাসে নেতাকর্মীরা সংগঠিত হয়ে আছে। বর্তমানে ঝালকাঠি জেলা, সদর উপজেলা ও শহর  যুবলীগের শীর্ষ পদ পাওয়ার জন্য প্রায় ডজন খানেক নেতা দৌঁড় ঝাপ করছেন।

জেলা কমিটিতে শীর্ষ পদ পেতে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বর্তমান জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক পৌর কাউন্সিলর রেজাউল করিম জাকির, সাবেক ছাত্রলীগনেতা ও পৌর কাউন্সিলর কামাল শরীফ, সাবেক ছাত্রলীগনেতা, শহর যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মো. ছবির হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন মিঠু, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফিক, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলী আসগড় আকাশ, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাইনুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার ইয়াদ মোর্শেদ প্রিন্স দৌড়ঝাপ করছেন বলে জানাগেছে।

সাবেক ছাত্রলীগনেতা, পৌর কাউন্সিলর কামাল শরীফ বলেন,‘ বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে ঝালকাঠি জেলার অধিনে যুবলীগের সব কয়টি ইউনিটের নেতা-কর্মীদেরকে নিয়ে মিটিং করা হয়েছে। সেখানে আমরা ব্যপক সাড়া পেয়েছি । আমরা আশা করছি বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মীদের উপস্থিতিতে বর্ধিত সভা সফল হবে।

জেলা যুবলীগের বর্তমান আহ্বায়ক পৌর কাউন্সিলর রেজাউল করিম জাকির বলেন, দীর্ঘ দিন পরে কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে ঝালকাঠিতে যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আমাদের অভিভাবক জননেতা আমির হোসেন আমু এমপি ছিলেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সফল চেয়ারম্যান। আমরা তাঁর নেতৃত্বে রাজনীতি করি। তিনিসহ কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাঈনুল হোসেন খান নিখিল আমাদের যে নেতৃত্ব উপহার দিবেন আমরা তাই মেনে নিব।’

আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য এ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি থাকার কথা রয়েছে কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম বদি , প্রধান বক্তা থাকবেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ( বরিশাল বিভাগের দায়িত্ব প্রাপ্ত ) কাজী মাজাহারুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাংবাদিক মানিক লাল ঘোষ, কেন্দ্রীয় কার্যকারী সদস্য সাইদুর রহমান জুয়েল ও তানিন তালুকদার।

(ডেস্ক/বাস/ঝাস)


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo
সম্পাদক ও প্রকাশক : পলাশ রায়
১৪, রীডরোড, শহীদ স্মরণি, ঝালকাঠি ৮৪০০
ইমেইল : [email protected]
মুঠোফোন : ০১৭১২ ৫১ ৭৫ ৪৬
© All rights reserved © 2019